বানিয়াচং থানা পুলিশের উদ্যোগে সাইবার বুলিং প্রতিরোধে বিট পুলিশিং সভা

জীবন আহমেদ লিটন : হবিগঞ্জের বানিয়াচং থানা পুলিশের উদ্যোগে সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব, মিথ্যা অপপ্রচার, কিশোর গ্যাং, নারীর প্রতি ডিজিটাল ভায়োলেন্স ও সাইবার বুলিং প্রতিরোধে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৪ টায় স্থানীয় ২ নং ইউনিয়ন পরিষদের সামনে ওই ইউপি চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও বানিয়াচং সার্কেল পলাশ রঞ্জন দে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ও হবিগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি মোহাম্মদ এমরান হোসেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হায়দারুজ্জামান খান ধন মিয়া, ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান প্রমুখ। আরও উপস্থিত ছিলেন বিট এস আই সনজয় সিকদারসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

সাইবার বুলিং সম্পর্কে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, সাইবার বুলিং’ হচ্ছে অনলাইনে কোনো শিশুকে প্রলুব্ধ বা হেয় প্রতিপন্ন করা, ভয় দেখানো এবং মানসিক নির্যাতন করা। শুরুতে কিশোর-কিশোরীরাই কেবল এ ধরনের কাজে জড়িত থাকে ভেবে বুলিং সংজ্ঞায়িত করা হলেও পরে দেখা যায় অনেক ক্ষেত্রে স্বনামে বা ফেক আইডির আড়ালে প্রাপ্তবয়স্ক অনেকেও এ ধরনের হীন কাজে জড়িত থাকে।সাইবার বুলিংয়ের ঘটনা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ঘটলেও ফোনে কিংবা ইমেইলেও অনেক সময় এ ধরনের নির্যাতনের ঘটনা ঘটে থাকে।

ওসি মোহাম্মদ এমারন হোসেন বলেন, সাইবার বুলিংয়ের কোনো সূত্র পাওয়া গেলে বা এ ধরনের ঘটনা একবার ঘটলে বিকৃত ও অসুস্থ মানসিকতার আরো অনেকের কাছে আক্রান্ত ব্যক্তির খোঁজ বা যোগাযোগের তথ্য চলে যায় বলে ধীরে ধীরে এর মাত্রা বাড়তেই থাকে। এর ক্রমবর্ধমান চাপে শিশুর মাঝে হতাশা,লেখাপড়ার প্রতি অনীহা, ইনসমনিয়া থেকে শুরু করে আত্মহত্যার প্রবণতা পর্যন্ত তৈরি হতে পারে।সাইবার বুলিং প্রতিরোধে এ বিষয়ে মা-বাবার ধারণা থাকা, সন্তান ইন্টারনেটে (কম্পিউটার এবং মোবাইলে) কী করছে তা জানা এবং সন্তানদের সাথে বন্ধুসুলভ সুসম্পর্ক বজায় রাখা উচিত।

আরও পড়ুন...

বানিয়াচংয়ের খাগড়িতে রাস্তার বেহাল দশা : প্রতিবেদক কবি এম আর ঠাকুর

আজমিরীগঞ্জে অগ্নিকান্ডে দোকান ভস্মীভূত : ২ কোটি টাকার ক্ষতি

বানিয়াচংয়ে হাটবাজারে উপচে পড়া ভীড়,মানা হচ্ছেনা শারীরিক দুরত্ব

অনলাইন ডেস্ক, দৈনিক অনুসন্ধান