নবীগঞ্জে প্রতিষ্ঠিত হল লাল সবুজের “Give & Take Library”

রোখসানা আক্তার,নবীগঞ্জ(হিবগঞ্জ)প্রতিনিধি।।হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের সুনামধন্য সামাজিক সংগঠন লাল সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদ সবসময়ই ইউনিয়নের জনসাধারণ ও শিক্ষার্থীদের কল্যাণে কাজ করে থাকে। তারা প্রতি বছর ইউনিয়নের শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধা বৃত্তি পরীক্ষা আয়োজনের মধ্য দিয়ে মেধাবীদের মধ্যে বৃত্তি প্রদান করে থাকে।

তাছাড়াও তারা ইউনিয়নের শিক্ষার্থীদের জন্য সবসময় ফ্রি ইডুকেশনাল ওয়ার্কশপ আয়োজন করে ইউনিয়নের শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। সেই সুবাদে তারা এই মাসে চালু করেছে “Give & Take Library”. এই লাইব্রেরীর মূল লক্ষ্য হচ্ছে- যেসব শিক্ষার্থীদের বই ও গাইড কিনতে সামর্থ্য নেই তাঁদেরকে বিনামূল্যে বই ও গাইড সর্বোচ্চ এক বছরের জন্য শর্ত মোতাবেক প্রদান করা হবে।

শর্তসমূহ: #শর্ত ১ : যারা গাইড লাইব্রেরী থেকে নিবে তাদেরকে পূর্বের ক্লাসের গাইড জমা দিতে হবে,‌এতে উক্ত গাইড দিয়ে অন্য একজন শিক্ষার্থী পড়তে পারবে। #শর্ত ২ : যারা এই লাইব্রেরী থেকে বই বা গাইড নিবেন , তাদের পূর্ণাঙ্গ ঠিকানাসহ একটা শর্ত পূরণ করতে হবে , আর সেটা হল – একবছর পর আপনাকে এই গাইড বা বই গুলো উক্ত লাইব্রেরীতে জমা দিতে হবে । তারপর আপনি পরবর্তী শ্রেণীর জন্য গাইড নিতে পারবেন। #শর্ত ৩: গাইডগুলো অবশ্যই যত্নসহকারে নিজের কাছে রাখতে হবে ।

কারন এই একই গাইড দিয়ে পরবর্তী বছর আপনারাই ছোট ভাই বা বোন পড়বে। এছাড়াও যেখানে একাডেমিক বই সামগ্রী ছাড়াও বিভিন্ন কবি সাহিত্যিকদের বই ও উপন্যাস সংরক্ষিত থাকবে। যেকেউ তার ইচ্ছানুযায়ী এসব বই পড়ার জন্য বাড়িতে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য নিতে পারবেন। এই লাইব্রেরীতে যেকোন ব্যক্তি বা শিক্ষার্থী তার অব্যবহৃত বা পরিত্যক্ত বই বা গাইড জমা দিতে পারবে । যেকোন ব্যক্তি উক্ত লাইব্রেরীর উন্নয়নে কাজ করতে পারবেন । কেউ তার পছন্দের বই প্রদান করে , কেউ লাইব্রেরীর উপকরণ উপহার দিয়ে অথবা কেউ আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে পারবেন।

লাইব্রেরীর প্রসঙ্গ নিয়ে লাল সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দীনের সাথে কথা বললে তিনি বলেন- “এই লাইব্রেরীর প্রতিষ্ঠা করা তাঁর ও তাঁর পরিষদের অনেক দিনের স্বপ্ন। তিনি আরও বলেন Give & Take Library নামটা আমরা এজন্য দিয়েছি যে- একজন শিক্ষার্থী তার পূর্বের শ্রেণীর বই বা গাইড লাইব্রেরীতে জমা দিয়ে পরবর্তী শ্রেণীর জন্য গাইড বই নিতে পারবে। এতে আমাদের সমাজে একটা ভারসাম্য রক্ষা হবে এবং আমাদের অব্যবহৃত বইগুলো কাজে আসবে।

তিনি মনে করেন একমাত্র বই পড়ার মধ্যে দিয়ে মানুষের ব্যক্তিত্বে সুন্দর পরিবর্তন আনা সম্ভব।” পরিষদের সেক্রেটারি আবুল হাসান মনে করেন “আমাদের পরিষদের গড়া এই লাইব্রেরী আমাদের সমাজের উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে । সেজন্য পরিষদের সব কর্মীবৃন্দ এই লাইব্রেরীর উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে , আশা করি আমরা শ্রীঘ্রই ইউনিয়নের সব গরীব ছাত্র-ছাত্রীদের তাদের প্রয়োজনীয় বই প্রদান করতে সক্ষম হব।

তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করছেন”। তাদের ভাষ্যমতে, যদি কেউ লাইব্রেরীতে বই বা গাইড জমা দিতে চান তাহলে লাল সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে ( চৌধুরীবাজার ) যোগাযোগ করতে পারেন অথবা লাল সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদ নামে ফেসবুক পেইজে বার্তা অপশনের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারবেন। এছাড়াও ০১৭৪৭৯১২২৪২/০১৬২০৫১৬৩২৪ নাম্বারে কল দিলে আপনার বাসা থেকে লাল সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদের কর্মীরা আপনার অব্যবহৃত বই বা গাইড সংরক্ষণ করবে।

 

 

 

আরও পড়ুন...

নবীগঞ্জে মিশুক কেড়ে নিল যুবকের প্রাণ : আহত ১

অনলাইন ডেস্ক, দৈনিক অনুসন্ধান

নতুন নয়,পুরাতন কাহিনী-জেসমিন বেগম

অনলাইন ডেস্ক, দৈনিক অনুসন্ধান

নবীগঞ্জে  দুইদিন যাবৎ মিশুকসহ যুবক নিখোঁজ : থানায় জিডি

অনলাইন ডেস্ক, দৈনিক অনুসন্ধান